শুরুর কথা
আশির দশক, তখন সবেমাত্র বাংলাদেশে ছোট-বড় সব বয়সী মানুষের মাঝে আইসক্রীম জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তবে ভালো মানের আইসক্রীমের সহজলভ্যতা ছিলোনা। তাই ১৯৮৭ সালে দূরদর্শী ব্যবসায়ী ব্যক্তিত্ব, জনাব আমানউল্লাহ মিঞা বাংলাদেশের মানুষের হাতে মানসম্পন্ন এবং সুস্বাদু আইসক্রীম তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করেন ঢাকা আইসক্রীম ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। তিনি সিদ্ধান্ত নেন, তাঁর নিজের আইসক্রীম তৈরির কারখানাতেই উৎপাদিত হবে আন্তর্জাতিক মানের চমৎকার সব আইসক্রীম। অনেক প্রতিকূলতা পেরিয়ে জনাব আমানউল্লাহ মিঞা ডেনমার্ক থেকে বিশেষজ্ঞ দল নিয়ে এসে ঢাকা শহরেই স্থাপন করেন তার স্বপ্নের আইসক্রীম তৈরির কারখানা – আর সেই সাথে জন্ম হয় পোলার আইসক্রীম-এর।

এগিয়ে যাওয়া
২০০৯ সালে নতুন ব্যবসায়িক অংশীদার হিসেবে পোলার-এর সাথে যুক্ত হন সফল উদ্যোক্তা এবং ব্যবসায়ী প্রকৌশলী জনাব নাজিম উদ্দীন আহমেদ। আধুনিক ব্যবস্থাপনা তত্ত্ব প্রয়োগ ও বিশ্বমানের খাদ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তিনি পোলার আইসক্রীম-এর উৎপাদন ব্যবস্থা আরও উন্নত এবং দক্ষ করে তোলেন। যার ফলাফল স্বরূপ, দুগ্ধজাত খাদ্যপণ্য বিভাগে বাংলাদেশের প্রথম কোম্পানি হিসেবে ISO 22000:2005 স্বীকৃতি অর্জন করে পোলার। যাত্রা শুরুর পরেই পোলারের চকোবার, পেঙ্গুইন, লিটার বক্স, কেক বক্স ইত্যাদি বিপুল জনপ্রিয়তা পায়। আর এই সাফল্যের পর এলো এগিয়ে চলার নতুন এক অনুপ্রেরণা, ISO 22000:2018। পরবর্তী সময়ে পোলার’ই সবার আগে মালাই, ক্ষীর, দই ইত্যাদি ঐতিহ্যবাহী ফ্লেভারের আইসক্রীম বাজারজাত করে ভোক্তাদের মন জয় করে নেয়। আর এরই ধারাবাহিকতায় পোলার আরও উন্নত মানের রোবাস্তো, সেরা স্বাদের বিস্কিট কোন এবং সবচেয়ে আধুনিক ধারার লাক্সারি (প্রিমিয়াম) সেগমেন্টের রাফিনাতো আইসক্রীম ব্র্যান্ড বাজারে নিয়ে এসেছে।

সময়ের সাথে, মন ভালোর আয়োজনে
পোলার ২০১৬ সালে নতুনরূপে তার লোগো উন্মোচন করে, এর সাথে সকল আইসক্রীমের প্রস্তুতপ্রণালি ও রেসিপিগুলোতে নিয়ে আসে উন্নত স্বাদ এবং আধুনিকতার ছোঁয়া। ইউরোপিয়ান মান এবং প্রযুক্তিতে প্রতিটি পণ্যে নিশ্চিত হয় আইসক্রীম আনন্দের সবকিছু। আর ভোক্তা চাহিদায় প্রতি বছর পছন্দের আইসক্রীম হয়ে থাকার এ গৌরব পোলারের কাছে সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণায় রূপান্তরিত হয়। এই আত্মবিশ্বাসে ২০২২ সালে কোম্পানি উন্নততর প্রযুক্তিনির্ভর নতুন কারখানা স্থাপন করে। সাভারে অবস্থিত এই কারখানাটি আরও অধিকতর উৎপাদনক্ষমতা ও বৈচিত্র্যময় আইসক্রীম ভোক্তার কাছে পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছে। নতুন যুগের এই পোলার আইসক্রীমের যাত্রা শুরু হয় ১৯৮৭ সালে আধুনিক ধারণার কাপ, কোন, চকোবার, লিটার বক্স ইত্যাদি উৎপাদনের মাধ্যমে। চলমান এই যাত্রায় উন্নতমানের আইসক্রীম তৈরি করে বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের, প্রতিটি পরিবারের মন ভালো করে দেয়ার মূলমন্ত্র নিয়ে আনন্দে এগিয়ে চলছে নিজের ব্যবসায়িক মূলমন্ত্র ‘মন ভালো থাক’ নিয়ে।

কাস্টমার কেয়ার

আপনার মতামত শেয়ার করুন ইমেইল